শাওমি ব্ল্যাক শার্ক ৫ ফোন এলো গেমারদের জন্য সুখবর নিয়ে

গেমিং ফোন বানানোর জন্য ব্ল্যাক শার্ক বেশ বিশ্বস্ত একটি নাম। অবশেষে ব্ল্যাক শার্ক এর নতুন ফোন, ব্ল্যাক শার্ক ৫ সিরিজ চলে এলো গ্লোবাল মার্কেটে। ব্ল্যাক শার্ক ৫ ও ব্ল্যাক শার্ক ৫ প্রো, এই দুইটি ফোন মুক্তি পেয়েছে এই সিরিজে।

ব্ল্যাক শার্ক ফোনের বিদ্যমান সব অসাধারণ ফিচারের পাশাপাশি আরো অনেক নতুন ফিচার ও আপগ্রেড এসেছে এই নতুন গেমিং ফোনগুলোতে যা আপনার গেমিং এক্সপেরিয়েন্সকে অন্য মাত্রায় নিয়ে যাবে। স্ন্যাপড্রাগন ৮ জেন ১ চিপসেট, আপগ্রেডেড ম্যাগনেটিক পপ-আপ ট্রিগারস, আলট্রা-রেসপন্সিভ ১৪৪ হার্জ ডিসপ্লে, এন্টি-গ্র‍্যাভিটি ডুয়াল-ভিসি কুলিং ও ১২০ ওয়াট হাইপারচার্জ হলো ফোনগুলোর প্রধান আকর্ষণীয় কিছু ফিচার। চলুন জেনে নেওয়া যাক গেমিং বিস্ট ব্ল্যাক শার্ক ৫ সিরিজ সম্পর্কে বিস্তারিত।

এডভান্সড এন্টি-গ্র‍্যাভিটি ডুয়াল ভিসি লিকুইড কুলিং প্রযুক্তি

গেমিং ও ই-স্পোর্টসকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব প্রদান করে ব্ল্যাক শার্ক। স্বভাবতই এসব কারণে ফোনগুলো বেশ জনপ্রিয়। গেমিং স্মার্টফোন এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফিচার হলো কুলিং পাওয়ার৷ হাই-এন্ড ও পাওয়ার-কনজ্যুমিং গেম দীর্ঘক্ষণ খেলার পর ফোন গরম হওয়া বেশ স্বাভাবিক একটি বিষয়। আর এই বাড়তি হিট এর ফলে ফোনের পারফরম্যান্স অনেকটা ড্রপ করে, আবার ফোনের ব্যাটারিতেও ইফেক্ট পড়তে পারে এই কারণে।

এই ওভারহিটিং সমস্যার সমাধানে লেটেস্ট ব্ল্যাক শার্ক ৫ প্রো ফোনের কুলিং আপগ্রেড করে নতুন এন্টি-গ্র‍্যাভিটি ডুয়াল ভিসি লিকুইড কুলিং সিস্টেম যোগ করা হয়েছে। এই সিস্টেমে দুইটি ভিসি লিকুইড কুলিং প্লেট ব্যবহৃত হয় যা 5320mm² এরিয়া কভার করে। এই নতুন “এন্টি-গ্র‍্যাভিটি” লেয়ার লিকুইড সার্কুলেশন স্পিড বাড়িয়ে ফোনের ইন্টারনাল তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে।

ফোনের হিট এর মূল উৎস, যেমনঃ চিপসেট, ৫জি এন্টেনা ও ব্যাটারি এই ভিসি লিকুইড কোল্ড প্লেটের সাথে সংযুক্ত, যা কোর হিট এর উৎসকে চেসিস এর চারপাশে ছড়িয়ে দেয় যার ফলে স্ট্যাবল পারফরম্যান্স পাওয়া যায়। এছাড়াও গ্রাফাইট শিটস, গ্রাফিন ও ফেজ এর মত এডভান্সড কুলিং ম্যাটেরিয়াল ব্যবহার করা হয়েছে যা হিটকে একস্থানে থাকা থেকে দূরে রাখে ও প্রক্রিয়াকে আরো ইফেক্টিভ করে তোলে। মূল কথা হলো বর্তমান সময়ের সবচেয়ে স্মার্ট কুলিং সিস্টেম রয়েছে ব্ল্যাক শার্ক ৫ সিরিজে, যার ফলে আনবিটেবল গেমিং পারফরম্যান্স পাওয়া যাবে এই সিরিজের ফোন থেকে।

পারফরম্যান্স

ব্ল্যাক শার্ক ৫ প্রো এর চিপসেট হিসেবে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮ জেন ১ প্রসেসর ব্যবহৃত হয়েছে, অন্যদিকে ব্ল্যাক শার্ক ৫ এর প্রসেসর স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ যা আরেকটি শক্তিশালী প্রসেসর। ফোন দুইটির র‍্যাম ও স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট সম্পর্কে ফোনগুলোর দাম সেকশনে জানতে পারবেন।

স্পেশাল গেমিং কন্ট্রোল

মোবাইল গেমিং কন্ট্রোলকে প্রতি বছর নতুন মাত্রায় নিয়ে যাচ্ছে ব্ল্যাক শার্ক। এখন পর্যন্ত ডুয়াল-জোন প্রেসার-সেনসিটিভ ডিসপ্লে থেকে ম্যাগনেটিক পপ-আপ ট্রিগার দেখেছি আমরা কোম্পানিটির তরফ থেকে। ব্ল্যাক শার্ক ৫ সিরিজে ইফেক্টিভ প্রেসার-সেনসিটিভ এরিয়া ১৬% বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া সিগনেচার সেকেন্ড-জেনারেশন ম্যাগনেটিক পপ-আপ ট্রিগার ও রয়েছে ব্ল্যাক শার্ক ৫ সিরিজে যাতে সাত লেভেলের ম্যাগনেটিজ ড্রাইভ লিফট রয়েছে।

ডিসপ্লে ও ব্যাটারি

ব্ল্যাক শার্ক ৫ এর ৬.৬৭ইঞ্চির এমোলেড ডিসপ্লেতে ১৪৪হার্জ রিফ্রেশ রেট সাপোর্ট রয়েছে। অন্যদিকে ব্ল্যাক শার্ক ৫ প্রো ফোনটিতে ৬.৬৭ইঞ্চির ওলেড ই-স্পোর্ট ডিসপ্লে রয়েছে। উভয় ফোনের ডিসপ্লে ১০-বিট কালার ডেপথ সাপোর্ট করে ও গেমিংয়ে অ্যাকুরেট কালার প্রদান করে। ৪৬৫০ মিলিএম্প এর ব্ল্যাক শার্ক ৫ প্রো এর ব্যাটারি বেশ দ্রুত চার্জ করা যাবে ১২০ওয়াট চার্জার দ্বারা। আবার ব্ল্যাক শার্ক ৫ ফোনটিতেও একই ব্যাটারি ও ফাস্ট চার্জার রয়েছে।

ক্যামেরা

ব্ল্যাক শার্ক ৫ ফোনটির ব্যাকে রয়েছে ৬৪মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপ। ফোনের ফ্রন্টে রয়েছে ১৬মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। ব্যাক ক্যামেরা দ্বারা ৪কে ৬০এফপিএস ভিডিও রেকর্ড করা যাবে ও ফ্রন্ট ক্যামেরা দ্বারা সর্বোচ্চ ১০৮০পি ৩০এফপিএস ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

অন্যদিকে ব্ল্যাক শার্ক ৫ প্রো ফোনটিতেও ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপ রয়েছে, তবে এখানে প্রাইমারি ক্যামেরা ১০৮মেগাপিক্সেলের। ব্ল্যাক শার্ক ৫ এর ২মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো ক্যামেরার বদলে ৫ প্রো তে ৫মেগাপিক্সেল টেলিফটো ম্যাক্রো ক্যামেরা রয়েছে। তবে দুইটি ফোনেই ১৩মেগাপিক্সেল এর আলট্রা-ওয়াইড ক্যামেরা রয়েছে।  ভিডিও রেকর্ডিং এর ক্ষেত্রে দুইটি ফোনে একই ফিচার বিদ্যমান। সামনে থাকছে ১৬ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা।

👉 কম দামে ভালো গেমিং ফোন

দাম

ব্ল্যাক শার্ক ৫ পাওয়া যাবে দুইটি ভ্যারিয়েন্টে। ৮জিবি র‍্যাম ও ১২৮জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ৪৩৯পাউন্ড বা ৫৪৯ডলার। অন্যদিকে ১২জিবি র‍্যাম ও ২৫৬জিবি স্টোরেজের ব্ল্যাক শার্ক ৫ এর দাম ৫২৯পাউন্ড বা ৬৪৯ডলার।

ব্ল্যাক শার্ক ৫ প্রো পাওয়া যাবে মোট ৩টি ভ্যারিয়েন্টে। ৮জিবি র‍্যাম ও ১২৮জিবি ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া যাবে ৭৯৯ডলারে, যেখানে ১২জিবি র‍্যাম ও ২৫৬জিবি স্টোরেজের দাম ৮৯৯ডলার। ১৬জিবি র‍্যাম ও ২৫৬জিবি স্টোরেজের ব্ল্যাক শার্ক ৫ প্রো এর ম্যাক্স ভ্যারিয়েন্ট এর দাম ৯৯৯ডলার।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top